Breaking News
Home / দেশের খবর / দাঁড়ানো ছেলেগুলো দর্শক নয়, তারাই প্রথমে হামলা করে – জানুন বিস্তারিতঃ-

দাঁড়ানো ছেলেগুলো দর্শক নয়, তারাই প্রথমে হামলা করে – জানুন বিস্তারিতঃ-

বরগুনায় রাস্তায় ফেলে প্রকাশ্য দিবালোকে রিফাত শরীফ (২৫) নামে এক যুবককে কু পি য়ে হ ত্যা র সময় পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা ছেলেগুলো দর্শক নয়, তারাই প্রথমে হামলা করেছে বলে জানিয়েছেন নিহত রিফাতের নববধূ আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

বুধবার এ হ ত্যা কাণ্ডের সময় রিফাতের পাশেই ছিলেন তার নববধূ আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি। তিনি খালি হাতেই খু নি দে র নিবৃত করার চেষ্টা করেন। এ সময় হামলাকারীদের সঙ্গে তার ধস্তাধস্তি হয়েছে। কিন্তু স্বামীর মৃ ত্যু ঠেকাতে পারেননি। মিন্নি কাঁদতে কাঁদতে বলছিলেন, ‘অনেক চেষ্টা করছি, কিন্তু ফিরাইতে পারি নাই।’

ওই ঘটনার সময় আশেপাশে অনেকই ছিলেন। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেনি। এরমধ্যে একজন ঘটনাটি ভিডিও করে ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, রিফাতকে যখন স ন্ত্রা সী রা কো পা চ্ছি ল তখন তাদের খুব কাছেই কয়েকজন যুবক দাঁড়িয়েছিল। এ দৃশ্য দেখে সবাই প্রশ্ন তুলেছেন ওই ছেলেগুলো কেন এগিয়ে আসেনি। অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করে দাঁড়িয়ে থাকা ছেলেগুলোর শরীরী অঙ্গভঙ্গি নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। কারণ ঘটনার সময় ছেলেগুলোকে খুব স্বাভাবিকভাবেই দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এজন্য অনেকের প্রশ্ন, ছেলেগুলো জনসাধারণ হলে এভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে পাড়ত না। হয় রিফাতকে বাঁচাতে এগিয়ে আসত, না হয় ভয়ে পালাত।

প্রকাশ্যে এমন হ ত্যা কা ণ্ডের সময় স্ত্রী ছাড়া রিফাতকে বাঁচাতে কেউ এগিয়ে না আসায় হাইকোর্ট পর্যন্ত বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

এদিকে বুধবারের সেই নৃ শং স ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি বৃহস্পতিবার সকালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি কলেজ দিয়ে বের হইছি, ও (রিফাত) আমার সঙ্গে ছিল। তখন কিছু পোলাপান আইসা কী জানি বলা শুরু করছে, ‘গালি দিছো ক্যান, গালি দিছো ক্যান?’ এ রকম জানি কী…। পরে আরও দু-তিনটা ছেলে আইসা কো পা ন শুরু করছে। আমি অনেক চেষ্টা করছি, কিন্তু ফিরাইতে পারি নাই।’

আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি আরও বলেন, ‘দিন-দুপুরে যারা এমন করে, আমি তাদের সুষ্ঠু বিচার চাই। তাদের যেন শাস্তি হয়।’

মিন্নি আরও বলেন, ভিডিওতে যাদের পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে ছেলেগুলো দর্শক নয়, মূলত তারাই প্রথমে রিফাত ও আমার পথ আটকে দিয়েছিল। সেই সঙ্গে তিন-চারজন রিফাতকে মা র তে শুরু করেছিল। নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী চাপাতি দিয়ে রিফাত শরীফকে কো পা তে শুরু করলে তারা পাশে দাঁড়িয়ে দেখেছিল। এর পর আমি প্রাণপণ চেষ্টা করেও রিফাত শরীফকে বাঁচাতে পারিনি।

ঘটনাটি দুঃখজনক উল্লেখ করে এ ঘটনায় জড়িত কেউ রক্ষা পাবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেন, বরগুনায় ঘটনায় সব আসামিকে যত দ্রুত সম্ভব গ্রেফতার করা হবে। ইতিপূর্ব মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত হ ত্যাসহ যতগুলো চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে সব ঘটনায় জড়িতরা গ্রেফতার হয়েছে। সবাইকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে, কেউ রক্ষা পাবে না।

যেকোনো মূল্যে সব আসামিকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম ও সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, রিফাত হ ত্যা র ঘটনা একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এর অর্থ এই নয় যে, দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক অবনতি ঘটেছে। …. একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, অন্য হ ত্যা কারীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

About o8PLioYmyW

Check Also

রিফাতের খু-নি-রা যাতে দেশ ছেড়ে না পালাতে পারে সেজন্য যে ব্যবস্থা নিল সরকার

বরগুনায় রিফাত শরীফের খুনিরা যাতে দেশ ছেড়ে না পালাতে পারে সেজন্য দেশের সব বিমানবন্দর, স্থলবন্দর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *